আড়াইজাজারে প্রতি মাসে ২ জন মুক্তিযোদ্ধার জমির নামজারী ফ্রি

0
299

বিশেষ প্রতিনিধি : নবাগত এসিল্যান্ড শাখীছেপ জাতীর বীরসন্তানদের বিশেষ সম্মান দেখালেন। রণাঙ্গণের বীর সেনানীদেরকে জমির নামজারির ক্ষেত্রে কোন টাকা দিতে হবে না। আড়াইহাজার উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জমি নামজারি করার টাকা নিজের বেতন থেকে পরিশোধ করার ঘোষনা দিলেন এসিল্যান্ড সাহেব। প্রতিমাসে অন্তত ২ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা এই সুবিধা পাবেন। তিনি বলেন, দুই মুক্তিযোদ্ধার জমির নামজারি করতে যে টাকা লাগে সেই টাকা আমি আমার বেতন থেকে দিয়ে দিব। তাঁরা দেশ মাতৃকার জন্য জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছেন বলেই আজকে আমরা স্বাধীণ দেশ পেয়েছি। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ডাকে আমাদের মুক্তিযোদ্ধারা যাঁর যা ছিল তা নিয়েই যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিলেন। সেই মহান মুক্তিযোদ্ধারা ভ‚মি অফিসে এসে ঝামেলা পোহাবেন, তা হতে পারে না। অন্তত আমি যতদিন আছি ততদিন মুক্তিযোদ্ধারা এই সুযোগটুকু পাবেন।

এসিল্যান্ড বিশেষভাবে বলেন, আমি সকলের সহযোগীতা কামনা করছি। আমি আশাকরি ভ‚মি অফিসে এসে কেউ যেন হয়রানির শিকার না হন। দালালচক্রের ছায়াও আমি সহ্য করবো না। কোন দুর্নীতি, অনিয়ম কারো চোখে পড়লে আমাকে জানাবেন। আমি সাথে সাথে ব্যবস্থা নিব।

আড়াইহাজারে মাদকের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি বাস্তবায়নের অঙ্গীকার পোষন করে এসিল্যান্ড শাখিছেপ বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে। দেশে মহামারীকালেও মাদক বিক্রেতাদের অপতৎপরতা আমাদেরকে শংকিত করে তোলে। মাদক যুবসমাজকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। মাদক এমন ভয়ংকর জিনিস যে, একটি পরিবারের কেউ মাদকাসক্ত হয়ে পড়লে তার খেসারত দিতে হয় পুরো পরিবারকে। তিনি সতর্কতা উচ্চারণ করে বলেন, আড়াইহাজারে যোগদান করার পরপরই শুনেছি এখানে হাটে-বাজারে ভেজাল কারবার করেন কিছু অসৎ কারবারি। আপনারা সাবধান হোন। এসব থেকে দূরে থাকুন। যেখানে ভেজাল সেখানেই আমি অভিযান চালাবো। হোটেল, রেস্তোরা, দোকানপাট কিম্বা বাজার-কিছুই বাদ যাবে না।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here