আড়াইহাজারে ৩১ গৃহহীন পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীর ঘর

0
176

স্টাফ রিপোর্টার: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে প্রাথমিক পর্যায়ে ৩১ গৃহহীন পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ন প্রকল্পের ঘর প্রদান করা হয়েছে।
শনিবার (২৩ জানুয়ারি) ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ঘরগুলো তুলে দেয়া হবে। ধীরে ধীরে সকল গৃহহীনদের ঘর প্রদান করা হবে। এর মধ্যে সাতগ্রাম ইউনিয়নে ৪টি, দুপ্তারা ইউনিয়নে ২টি, ব্রাহ্মণদী ইউনিয়নে ২টি ও বিশনন্দী ইউনিয়নে ২টি ঘর দেয়া হবে। এ ছাড়া মাহমুদপুর ইউনিয়নের খাসেরকান্দি মৌজায় ২১টি ঘর প্রদান করা হবে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সোহাগ হোসেন বলেন, ভূমিহীনদের তালিকা আমরা প্রস্তুত করেছি এবং সকলকেই আমরা ঘর প্রদান করবো। ইতোমধ্যে এ লক্ষ্যে জমি নির্ধারন ও ঘর নির্মান কাজ চলমান রয়েছে। প্রাথমিক পর্যায়ে প্রথমে বিধবা, বয়স্ক, পঙ্গু ও তৃতীয় লিঙ্গের মানুষদের আমরা প্রাধান্য দিয়ে ঘর দিচ্ছি। শনিবার ৩১ টি পরিবারের মধ্যে ঘর হস্তান্তর করা হবে।
আড়াইহাজারের প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবু সাঈদ মলি¬ক জানান, আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি যেন ঘরগুলো চমৎকার হয়। ইতোমধ্যে ঘর পেয়ে গৃহহীনরা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন এবং নির্মানকাজের প্রশংসা করেছেন। তারা সকলেই খুশি। একটি পুরো বাড়িই বলা চলে। প্রতিটি বাড়িতে সব ধরনের ব্যবস্থা রয়েছে এবং বিদ্যুত পানি রয়েছে। আমরা আশা করি এখানে থাকতে কারো কোন অসুবিধা হবেনা।
সহকারি কমিশনার (ভূমি) উজ্জ্বল হোসেন জানান, আমরা খুঁজে খুঁজে উপযুক্ত স্থানে জমি নির্ধারন করেছি যেন বসবাসরতদের ভবিষ্যতে কোন ধরনের সমস্যা না হয়। আমরা অত্যন্ত আনন্দিত গৃহহীনদের ঘর প্রদান করতে পেয়ে। আমরা প্রতিটি গৃহহীন পরিবারের জন্যই ঘর নির্মান করতে জমি খুঁজছি। আশা করছি আমাদের কোন ধরনের অসুবিধা হবেনা এবং যারা ঘর পাবেন তাদেরও প্রতিটি জমি পছন্দ হবে।
ঘর পাওয়া গৃহহীন গোপালদী পৌরসভার রামচন্দ্রদী গ্রামের সাত্তার জানান, আমরা কৃতজ্ঞ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বর্তমান সরকারের প্রতি। ঘর ছাড়া পথে ঘাটে আমাদের জীবন কাটতো। শীত আসলে পথের ধারে আগুন জ্বালিয়ে সারারাত বসে থাকতাম। মশার কামড় তো আমাদের নিয়মিত ঘটনা। আর পথের ধারে পড়ে থাকলেও দেখার মতো কেউ ছিলনা। এমন একটি আচরণ হতো আমাদের সাথে যা বলার মত নয়। আজ সরকার আমাদের ঘর দিয়েছে থাকার যায়গা দিয়েছে। এখন পরিবার নিয়ে সেখানে থেকে খাবার যোগাড় করতে পারবো। আশা করি এখন আমাদের জীবনটাই বদলে যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here