আড়াইহাজার বাজারে ম্যাজিস্ট্রেট সোহাগ হোসেনের অ্যাকশন

0
265

বিশেষ প্রতিনিধি:  শনিবার দিন ব্যাপী আড়াইহাজার বাজারে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দুরত্ব প্রতিপালন, ফুটপাত দখলমুক্ত করণ ও যানজট নিরসনে  ম্যাজিট্রেট মোঃ সোহাগ হোসেনের মোবাইল কোর্ট অভিযান পরিচালনা করেছেন।  এ সময় জরিমানাও করা হয়েছে বেশ কয়েকজনকে।

জানা গেছে, আড়াইহাজার উপজেলার বিপণিবিতানে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক প্রণীত এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারিকৃত নির্দেশনার আলোকে বিপণিবিতানগুলো পরিচালনা হচ্ছে কিনা এ বিষয়ে মনিটর করার জন্য উপজেলা নির্বাহি অফিসার ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  সোহাগ হোসেনের নেতৃত্বে এবং পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সহযোগিতায় মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করা হয়।

এ সময় আড়াইহাজার বাজারের শাহ্জালাল মার্কেটে অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে মার্কেটের ভিতরে বিভিন্ন দোকানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ব্যবসা পরিচালনা না করায় সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮ এর ২৪(১) ধারার অপরাধ ও ২৪(২) ধারায় ১৪ জন ব্যাক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে মোট ৭,৫০০ (সাত হাজার পাঁচশত টাকা মাত্র) অর্থদণ্ড প্রদান করা হয় ।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহি অফিসার ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  মোঃ সোহাগ হোসেন জানান, সরকার মানুষের জীবন ও জীবিকার কথা বিবেচনা করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত ব্যবসা পরিচালনার অনুমতি প্রদান করেছেন।

আমরা ব্যবসায়ীদের অনূরোধ করব যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য। অন্যথায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা সহ আইনের কঠোর প্রয়োগের মাধ্যমে সরকারি নির্দেশনা শতভাগ প্রতিপালন নিশ্চিত করব।

এ সময় আড়াইহাজার বাজারের যানজট নিরসনে ফুটপাত দখলমুক্ত করা হয়। বাজারের ফুটপাতে অবস্থিত প্রায় শতাধিক দোকান উচ্ছেদ করা হয়। উল্লেখ্য, আড়াইহাজার বাজারে এখন থেকে প্রতিদিন ৮ জন আনসার সদস্য যানজট নিরসনে কাজ করবে।

এদিকে বাজারের জাকিরের ওষুধের দোকানের সামনে মটর সাইকেল রাখায় একহাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। এই খবরের পর সৌদিয়া ফামেসীসহ বেশীর ভাগ  দোকান বন্ধ করে পালিয়ে যায়। ওষুধের দোকান পালিয়ে  যাওয়ার রহস্য জানতে চায় সাধারণ মানুষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here