কালাপাহাড়িয়ায় ময়না তদন্তের জন্য দাফনের ৫৭ দিন পর কবর থেকে লাশ উত্তোলন

0
1176

মাসুম বিল্লাহ: আড়াইহাজারে ময়না তদন্তের জন্য দাফনের ৫৭ দিন পর কবর থেকে আলম (৩৩) নামের এক যুবকের লাশ উত্তোলন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিার দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো: উজ্জল হোসেনের উপস্থিতিতে উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের ইজারকান্দি কবরস্থান থেকে লাশটি উত্তোলন করা হয়।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, ২৭ জুন উপজেলার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের ইজারকান্দি গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নুরুল হক তালুকদার ওরফে হক মেম্বার এবং জালাল বাহীনির মধ্যে রক্ষক্ষয়ী সংঘর্ষ ও গুলাগুলি হয়। এতে আইয়ুব নামের এক স্কুল ছাত্র নিহত হয়। আইয়ুব ছিল হক মেম্বারের সমর্থক।

অপর দিকে জালালের সমর্থক আলম নামের এক যুবক চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৯ জুলাই কাচঁপুরের একটি হাসপাতালে মারা যায়। পরে ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ দাফন করা হয় ।  এই ঘটনায় হক মেম্বারের লোকজন প্রতিপক্ষ যাতে মামলা করতে না পারে সেই কারনে নিহত আলমের স্ত্রী জোসনাকে  আটক করে রাখে।

পরে আলমের স্ত্রী জোসনা ছাড়া পেয়ে ১৯ জুলাই নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তোফাজ্জলকে এক নম্বর আসামী করে ২২ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত আরো ১০/১২ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। আদালত লাশ উত্তোলন করে পূর্ণরায় ময়না তদন্ত করার জন্য আদেশ দেন।

সেই মোতাবেক বৃহস্পতিবার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো: উজ্জল হোসেনের উপস্থিতি লাশ উত্তোলন করা হয়। এই সময় কালাপাহাড়িয়া ফাঁড়ির ইনচার্জ ওসি খন্দকার তবিদুর রহমান ও নিহত আলমের স্ত্রী জোসনা বেগমসহ তার স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন। নিহত আলমের স্ত্রী জোসনা বেগম হত্যাকারীদের বিচার দাবী করেন। তাছাড়াও তিনি তোফাজ্জলের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজিসহ নিরহ মানুষদের হয়রানির অভিযোগ করেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here