গোপালদীতে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, ৫ কোটি টাকার ক্ষতি

0
500

মাসুম বিল্লাহ: আড়াইহাজারে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে সৃষ্ট ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে চোখের সামনে পুড়ে গেল ৪ টি টেক্সটাইল ২টি ওয়ার্কসপ,১টি ফার্নিচার, ১টি রিক্সার গ্যারেজ, ২টি সুতার কুনিং কারখানা ও ১ টি স্টেশনারী দোকান। এ ঘটনা শুক্রবার দুপুর ১টায় উপজেলার গোপালদীবাজার পৌর এলাকা সংলগ্ন উলুকান্দি পশ্চিমপাড়া এলাকায় ঘটেছে। খবর পেয়ে আড়াইহাজার ফায়ার সার্ভিসের ২টি ও মাধবদী স্টেশনের ২টি সহ মোট ৪টি ইউনিট ২ ঘন্টা চেষ্টার পর বিকেল তিনটায় আগুণ নিয়ন্ত্রণে আসে।

আড়াইহাজারের ইউএনও মো: রফিকুল ইসলাম দূর্ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে বলেছেন, এটা নিছক দূর্ঘটনা নাকি নাশকতা তা খতিয়ে দেখা হবে। ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের সহায়তা করা হবে। এদিকে, ভয়াবহ এই অগ্নিকান্ডে ক্ষতির পরিমাণ ৪/৫ কোটি টাকা হবে বলে ধারনা করছেন গোপালদী তদন্ত কেন্দ্রের (ভারপ্রাপ্ত) ইনচার্জ আশরাফুল ইসলাম।

আড়াইহাজার ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক তানহারুল হক জানান, আপাতত ক্ষয়ক্ষতি নিরূপন করা সম্ভব হয়নি। তবে প্রাথমিকভাবে জানাগেছে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত। দুপুর ১টায় উলুকান্দি পশ্চিমপাড়ার শাহজালাল টেক্সটাইলে প্রথম আগুণ লাগে। এ সময় সকলেই ছিলেন মসজিদে। খবর পেয়ে অনেকে নামাজ ছেড়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে কাজ করেন। এই সময় স্থানীয় এক লোক আগুণ দেখতে পেয়েছেন এদের মধ্যে একজন ত্রিপল নাইনে (৯৯৯) কল করেন। ত্রিপল নাইন থেকে খবর পান আড়াইহাজার ও মাধবদী ফায়ার সার্ভিস স্টেশন। ৪টি ইউনিট দুই ঘন্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুণ নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

স্থানীয়রা জানান, ঠিক নামাজের সময় শাহজালাল টেক্সটাইল মিল থেকে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুণ লাগে। মিলের ও আশপাশের লোকজন সকলেই ছিলেন মসজিদে। ফলে আগুণের লেলিহান শিখা একে একে গ্রাস করে পাশ্ববর্তী হাবিবুল্লাহ টেক্সটাইল, সুবল টেক্সটাইল, হারিছুল হক টেক্সটাইল, আরিফের ওয়ার্কশপ, শহীদজামানের ওয়ার্কশপ, লোকনাথ বিশ্বাসের ফার্ণিচার, আলমের রিক্সার ও স্টেশনারী, আজগর আলীর সুতার কারখানা ও ইউসুফের কুলিং এর দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। সরেজমিনে দেখা গেছে, স্থানীয় শত শত যুবক আগুন নিভানোর কাজে অংশ নেন। ক্ষতিগ্রস্থদের আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠেছে আকাশ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here